নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় পহেলা বৈশাখ উদযাপন

লেখক:
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা ও নির্মল করার বার্তা নিয়ে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে এবার শোভাযাত্রার পথ ছিল ভিন্ন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি থেকে ভিসি চত্বর পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয় এর পথ। তাতে ছিল তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সামনে র্যাব, সোয়াট টিম, তারপর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) এবং তৃতীয় স্তরে পুলিশ সদস্যরা অবস্থান করছিলেন। এছাড়া সাদা পোশাকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেছেন।
মঙ্গল শোভাযাত্রা ঘিরে চতুর্দিকে ছিল নিরাপত্তা বলয়। যার ফলে শোভাযাত্রা শুরু হওয়ার পর মাঝখান দিয়ে কেউ প্রবেশ করতে পারেনি। শোভাযাত্রায় পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিম, শিক্ষক-কর্মকর্তাদের টিমও তৎপর ছিল। এছাড়া স্কাউটস এবং বিএনসিসির সদস্যরাও এখানে শৃঙ্খলা রক্ষার কাজে নিয়োজিত ছিলেন। শোভাযাত্রার পুরো পথে সিসিটিভি ক্যামেরা ও পর্যাপ্তসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন ছিল। গতবারের মতো এবারও মুখোশ ব্যবহার ও ভুভুজেলা বাজানো নিষিদ্ধ ছিল। নিরাপত্তার জন্য রমনা পার্ক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ আশপাশের এলাকায় কেন্দ্রীয় রাস্তা বন্ধ করে রাখা ছিল।
নিরাপত্তা প্রসঙ্গে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশন্স) কৃষ্ণ পদ রায় বলেন, মঙ্গল শোভাযাত্রা উপলক্ষে ডিএমপি ঝুঁকির সম্ভাবনাকে মাথায় রেখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করে। সকল ধরণের ঝুঁকি মোকাবিলায় ডিএমপি সর্বদা প্রস্তুত। কোনও দুষ্কৃতিকারী কোনও অনিষ্ট করতে পারবে না। আমাদের সাদা পোশাক আছে, ইউনিফর্মের লোকজন আছে, টেকনিক্যাল সাপোর্ট আছে, সিসিটিভি সাপোর্ট আছে, ব্যারিকেড আছে, গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে ওয়াচ টাওয়ার আছে। প্রতিবার তিন স্তরের নিরাপত্তা থাকলেও এইবার সব মিলিয়ে আমরা পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।